হাওড়া জুড়ে জোড়াফুল প্রসূনের হ্যাটট্রিক, উলুবেডিয়ায় জিতলেন সাজদাও

নাবারুণ হাজরা

সকাল থেকেই উড়ল আবির, উঠল স্লোগান। মা-মাটি-মানুষ জিন্দাবাদ। হাওড়ার দুই লোকসভা আসনে জোড়া ফুলের ঝড়ে উড়ে গেল বিরোধীরা । যেমন হাওড়া, তেমন উলুবেড়িয়া। দুই আসনেই রেকর্ড মার্ছিনে জিতলেন তৃণমূল প্রার্থীরা। হাওড়া লোকসভা কেন্দ্রে নিজের গড় অটুট রেখে জয়ের হ্যাটট্রিক করলেন তৃণমূল প্রার্থী প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপির রন্তিদেব সেনগুপ্তকে তিনি পরাজিত করলেন ৯৭ হাজার ভোটে । আর উলুবেড়িয়া কেন্দ্র থেকে কংগ্রেস প্রার্থী সাজদা আহমেদ জয়ী হয়েছেন। আর তাঁর জয়ের পরই সবুজ আবিরে উন্মাদনায় ভাসল হাওড়া জেলা। দীর্ঘদিন ধরেই হাওড়া তৃণমূলের গড় হিসাবেই পরিচিত। আর এবারও তা অক্ষতই রইল। তৃণমূল নেতৃত্বের মতে, গত কয়েক বছর ধরে হাওড়াজুড়ে উন্নয়নের ফলেই এবারের ভোটে নিজের কেন্দ্র ধরে রেখে জয়ের হ্যাটট্রিক করে সংসদের দিকে পা বাড়ালেন তৃণমূল প্রার্থী প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। গণনার শুরু থেকেই এগিয়ে ছিলেন তৃণমূল প্রার্থী। বেলা হত বেড়েছে বিরোধীদের সঙ্গে ব্যাবধানও ততই বেড়েছে। প্রসূন বদ্দ্যোপাধ্যায়ের জয়ের মার্জিন ক্রমশ বাড়িয়ে দেয় সাঁকরাইল, পাঁচলা, শিবপুর, দক্ষিণ হাওড়া ও মধ্য হাওড়া বিধানসভা কেন্দ্র। সেই কারণে বেলা বাড়তেই শিবপুর আইআইইএসটির গণনা কেন্দ্রের সামনে তৃণমূলের ক্যাম্পের মুখে চওড়া হাসি লক্ষ করা গিয়েছে তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের মুখে। একেবারে উৎসবের  মেজাজ ।

ভোট-যুদ্ধে প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রধান সেনাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায়কে ছুটতে দেখা গিয়েছে এক গণনাকেন্ত্র থেকে আরেক গণনাকেন্দ্র পর্যন্ত। তৃণমূল প্রার্থী প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় এগিয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া মাত্রই তৃণমূল শিবিরে উচ্ছ্বাস শুরু হয়ে যায় সকাল থেকেই। জয়ের পর প্রসূনবাবু বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকাতেই এখানকার মানুষ তৃণমূলকে জয়ী করেছে। এই জয় মা-মাটি-মানুষের জয়। আগামি দিনে এখানে আরও অনেক উন্নয়নের কাজ হবে। এদিন প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় গণণাকেন্দ্র থেকে বেরনোর পরই তাঁকে ঘিরে উচ্ছাসে ফেটে পড়েন তৃণমূল কর্মীরা।” একইরকমভাবে এবার ভাল ফল হয়েছে উলুবেড়িয়া কেন্দ্রেও। তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী সাজদা আহমেদ এখান থেকে জয়ী হয়েছেন। তিনি বিজেপির জয় বন্দ্যোপাধ্যায়কে ২১৫৩৫৯ ভোটে পরাজিত করেছেন। এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের জন্য সাংসদ নির্বাচিত হলেন সাজদা আহমেদ।

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে এই আসন থেকে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী সুলতান আহমেদ ২,০১,২২২ ভোটের ব্যবধানে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআই(এম) প্রার্থী সাবির উদ্দিন মোল্লাকে পরাজিত করেন। কিন্ত ২০১৭ সালের ৪ সেপ্টেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সুলতান আহমেদের আকস্মিক প্রয়াণের পর তাঁর সহধর্মিণী সাজদা আহমেদকে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উলুবেড়িয়া লোকসভা নির্বাচনের তৃণমূল প্রার্থী করেন। ২০১৮ সালের ২৯ জানুয়ারি সেই উপনির্বাচনে সাজদা আহমেদ তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী অনুপম মল্লিককে ৪,৭৪,৫১০ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে প্রথমবারের জন্য সাংসদ নির্বাচিত হন। সাজদা আহমেদ তাঁর এই জয়কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের ফসল বলে অভিহিত করেছেন। এবারও ভোটগণনার প্রথম থেকে একবারের জন্যও তিনি পিছোননি। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একের পর এক রাউন্ড হয়েছে, আর জয়ের ব্যবধান বেড়েছে। উন্মাদনায় ভেসেছেন দলের কর্মী-সমর্থকরা। তবে তৃণমূলের এই জয়ের পর দলীয় কর্মীদেরও সংযত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নেতৃত্বের তরফে।

This post is also available in: English

Subscribe to Jagobangla

Get the hottest news,
fresh off the rack,
delivered to your mailbox.

652k Subscribers

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial