শিল্পপতিদের উপর কেন্দ্র চাপ বাড়াচ্ছে কেন, প্রশ্ন মমতার

হিয়া রায়

প্রায় দু’দিন নিখোঁজ থাকার পর উদ্ধার হয় ক্যাফে কফি ডে (সিসিডি)-এর কর্ণধার ভি জি সিদ্ধার্থর দেহ। ম্যাঙ্গালুরুর কাছে নেত্রাবতীর পাড় থেকে একদল মৎসজীবী তাঁর নিথর দেহ উদ্ধার করেন। শিল্পপতির মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছেন, খুবই দুঃখজনক ও দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। শিল্পপতির পরিবারকে সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি দেশের শিল্পপতিদের নিরাপত্তা কোথায়? সেই প্রশ্নটাও তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সিসিডির মালিক ভি জি সিদ্ধার্থর মৃত্যুর ঘটনা তুলে ধরে তিনি বললেন, “এমন একটা বাতাবরণ তৈরি হয়েছে, শিল্পপতিরা ত্রস্ত। তাঁরা শুধু দেশ ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন এমনটা নয়, একজনের মৃত্যুও হয়েছে। আমি জানতে চাই, কেন এমন হল?”

সিদ্ধার্থর মৃত্যু নিয়ে দেশ তোলপাড়। অনেকেই জানিয়েছেন, সিদ্ধার্থ মতো শিল্পপতিদের অবসাদের কারণ বিজেপি পরিচালিত কেন্দ্রের সরকার। কারণ, মোদির সরকার উদ্যোগপতি ও শিল্পপতিদের শিল্প-সহায়ক পরিবেশ দিতে ব্যর্থ। শিল্পপতিদের বিভিন্নভাবে হেনস্তা করা হচ্ছে, এমনটাও জানিয়েছেন দেশের উদ্যোগপতিরা। মুখ্যমন্ত্রী ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন। তিনি সেখানে লিখেছেন, শিল্পপতির মৃত্যুর ঘটনায় আমি গভীরভাবে মর্মাহত। দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। তিনি সরকারের হয়রানি ও চাপের কারণে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। বিরোধী দলগুলিও হর্সট্রেডিং ও বিভিন্ন চাপের কারণে ভীত সন্ত্রস্ত। নবান্নেও সাংবাদিকদের কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক বৃদ্ধি তলানিতে। সরকার অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরি, বিএসএনএল, এয়ার ইন্ডিয়া, রেলওয়ের মতো ৪৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে বেসরকারীকরণের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এটি একটি নির্বাচিত সরকার। তারা কাজ করুক। অযথা সবাইকে হয়রান করছে কেন? মানুষ কাজ হারাচ্ছে কেন? কেন শিল্পপতিদের উপর এত চাপ বাড়ানো হচ্ছে? পাশাপাশি কেন্দ্রের চাপের কারণে শিল্পপতিদের অনেকেই দেশ ছেড়ে চলে গিয়েছেন। অনেকেই বাইরে যাওয়ার চিন্তা করছেন।

একদিকে কেন্দ্রের সরকার বিভিন্ন এজেন্সিকে কাজে লাগিয়ে মানুষকে ভয় দেখাচ্ছে। অন্যদিকে দেশে বেকারত্বের সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে বলে জানিয়েছেন জননেত্রী। এই অবস্থায় কেন্দ্রের কাজ সম্পর্কেও মতামত দিয়েছেন তিনি। বলেছেন, কেন্দ্রের সরকারের কাছে আমার আবেদন, কেন্দ্রে একটি সরকার নির্বাচিত। ফলে তাদের কাজ শিল্প, কৃষি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি। সেটাই দেশের ভবিষ্যৎ। কেন্দ্রের সরকারকে শান্তিপূর্ণভাবে কাজ করতে হবে। মানুষের জন্য কাজ করতে হবে।

This post is also available in: English

Subscribe to Jagobangla

Get the hottest news,
fresh off the rack,
delivered to your mailbox.

652k Subscribers