শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বেতন সুরক্ষিত করল রাজ্য সরকার

পরিযায়ী ভট্টাচার্য

প্রাথমিক, এসএসকে-এমএসকে শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধির পর এবার মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিকে সহ-শিক্ষক-শিক্ষিকাদের পে-প্রোটেকশন অর্থাৎ বেতন-সুরক্ষিত করল রাজ্য সরকার। অর্থাৎ, কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকারা নতুন স্কুলে যোগ দিলেও তাঁদের আগের স্কুলে চাকরির অভিজ্ঞতা ও ইনক্রিমেন্ট বহাল থাকবে। রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতিসাধনের পাশাপাশি জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে শিক্ষকদের আর্থিক বিষয়ের উপর নজর দিচ্ছেন, এই উদ্যোগের মাধ্যমে তা আরও একবার প্রমাণিত হল। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নির্দেশে সম্প্রতি স্কুল সার্ভিস কমিশনের (এসএসসি) মাধ্যমে বেছে নেওয়া শিক্ষক-শিক্ষিকারা নতুন চাকরিতে যোগ দিলেও তাঁদের বেতন সুরক্ষিত করতে পে-প্রোটেকশনের নির্দেশিকা জারি করেছে স্কুলশিক্ষা দফতর। শুধু সুরক্ষা নয়, হায়ার স্কেল পে প্রোটেকশন’-এর নির্দেশিকাও প্রকাশিত হয়েছে। সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষা দফতরের অধীন সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত মাদ্রাসা থেকে স্কুলে যাওয়া শিক্ষক-শিক্ষিকারাও এই সুযোগ পাবেন। সরকারের সিদ্ধান্তে খুশি প্রাথমিক শিক্ষকরা। জননেত্রীর এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে বিভিন্ন শিক্ষক-সংগঠনও | তাঁদের কথায়, রাজ্য সরকার “পে-প্রোটেকশন” দেওয়ায় শিক্ষকদের বড় অংশই উপকৃত হবে। এসএলএসটি দিয়ে নতুন স্কুলে যুক্ত হওয়ার পরও চাকরির কনটিনিউয়েশন পাচ্ছিলেন না।

বস্তুত, সদ্য সম্পূর্ণ হওয়া মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষকদের একটা বড় অংশ বাড়ির কাছে আসার জন্য পরীক্ষা দেন। এছাড়া মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষক শিক্ষিকারা উচ্চমাধ্যমিক স্তরে বেশি বেতনের জন্য পরীক্ষা দিয়েছিলেন। সেই মতো পরীক্ষায় পাস করার পর নতুন স্কুলে যোগ দিয়েই শিক্ষক-শিক্ষিকারা দেখেন সেখানে তাঁদের ইনিশিয়াল পে নিতে হচ্ছে। যার জেরে ৩-১৫ বছর চাকরি করার পরও তাঁদের মাসিক বেতন এক ধাক্কায় ৫-২০ হাজার টাকা কমে যাচ্ছে। আবার দীর্ঘদিন চাকরি করে আসার ফলে তাঁরা সিনিয়রিটি, বর্ধিত বেতন, সবকিছু থেকেই বঞ্চিত হচ্ছেন। কারও কারও মাসিক লোকসানের পরিমাণ ২০ হাজার টাকা পর্যন্তও রয়েছে। বিষয়টি শিক্ষামন্ত্রী জানতে পেরেই এ বিষয়ে তৎপর হন। বিধানসভায় শিক্ষা দফতরের বাজেট পেশের সময় কর্মরত শিক্ষকদের আর্থিক লোকসান ঠেকাতে পে-প্রোটেকশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়ে দেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়|

রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে একাধিক পদক্ষেপ করছে রাজ্য সরকার। জননেত্রীর নির্দেশে সর্বস্তরে শিক্ষকদের আর্থিক সুযোগসুবিধা দেওয়ার বিষয়ে উদ্যোগে হয়েছে রাজ্য সরকার। প্রাথমিক শিক্ষকদের পর বেতন বেড়েছে এসএসকে এবং এমএসকে শিক্ষকদের। এসএসকের শিক্ষকদের বেতন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার টাকা। একইসঙ্গে এমএসকে শিক্ষকদের বেতন বেড়ে হল ১৩ হাজার টাকা। এতদিন পর্যন্ত এসএসকের শিক্ষকদের বেতন ছিল ৫৯৫৪ টাকা। সেটাই এবার বেড়ে হল ১০ হাজার টাকা। একইসঙ্গে এসএসকে প্রধানরা পাবেন ১০,৩৪০টাকা। অন্যদিকে, এমএসকে শিক্ষকদের বেতন ৮৯০০ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ১৩ হাজার টাকা। একইসঙ্গে এমএসকের প্রধানরা পাবেন ১৪ হাজার টাকা। বেতন বৃদ্ধি-সহ একাধিক সুবিধার কথাও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এতদিন পঞ্চায়েতের অধীনে ছিলেন এসএসকে এবং এমএসকের সহায়ক এবং সম্প্রসারকরা। এবার রাজ্যের শিক্ষা দফতরের অধীনে আনা হল তাঁদের। রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে সহায়ক, সম্প্রসারকের পদ থেকে এবার শিক্ষকের মর্যাদা পাবেন এসএসকে এবং এমএসকের শিক্ষকরা।

This post is also available in: English

Subscribe to Jagobangla

Get the hottest news,
fresh off the rack,
delivered to your mailbox.

652k Subscribers

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial