বিজ্ঞানগুরু সত্যেন্দ্রনাথ

রাজ চক্রবর্তী

পরম্পরা শুধুই শিল্পের ক্ষেত্রে নয়, জ্ঞান-বিজ্ঞানের কোনও শাখাতেই এ-রীতির ব্যত্যয় ঘটে না। তাই দেখা যায়, বাংলা সাহিত্যে বঙ্কিমচন্দ্র, রবীন্দ্রনাথ, শরৎচন্দ্র, মানিক-বিভৃতি-তারাশঙ্কর প্রমুখ একটা ধারাবাহিক সাধনার ফসল। অধ্যাত্ম জগতেও রামকৃষ্ণ বিবেকানন্দর পরম্পরা  স্বীকৃত। খেলাধুলাতেও একই সত্য। তেমনই বাঙালির বিজ্ঞান- সাধনার ইতিহাসেও দেখা যায়, আচার্য প্রফুল্লচন্দ্র ও জগদীশচন্দ্রর দেখানো পথেই যেন উত্তরসূরি হয়ে আবির্ভূত হয়েছিলেন তিন বিশিষ্ট নক্ষত্র। এঁরা হলেন বিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসু, মেঘনাদ সাহা ও প্রশান্তচন্দ্র মহলানবিশ। বিশ্ব-বিজ্ঞানের দরবারে এঁদের সকলেরই অবদান আমাদের গর্বিত করেছে। উনিশ-বিশ শতকের বাংলায় প্রতিভাধর ও কৃতী বাঙালির বিশ্বজয়ের ঘটনা বারবার ঘটেছে। এসময় বিজয়লক্ষ্মীর বরমাল্য ছিনিয়ে এনেছেন তাঁরা বারবার। জগৎসভায় বাংলা তথা ভারতের শ্রেষ্ঠত্ব স্বীকৃত হয়েছিল এঁদের সাধনার জোরেই। বিজ্ঞানাচার্য সত্যেন্দ্রনাথের কৃতিত্ব আজও শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণীয়।

বাংলার বিশিষ্ট বিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসুর জন্ম ১৮৯৪ সালের নববর্ষের দিনটিতেই, কলকাতার গোয়াবাগানে। তাঁর বাবা সুরেন্দ্রনাথ ছিলেন পূর্ব ভারতীয় রেলের হিসাবরক্ষক। মা আমোদিনী বসু ছিলেন তখনকার দিনের বিখ্যাত আইনজীবী মতিলাল রায়চৌধুরির মেয়ে। সত্যেন্দ্রনাথের জন্মসালটি কলাজগতে স্মরণীয়। কেননা, ওই একই বছরে জন্মেছিলেন বাংলায় বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিশিষ্ট নাট্যকার জর্জ বার্নার্ড শ। সালটিকে আরও স্মরণীয়তা দান করলেন সতোন্দ্রনাথ।

উনিশ শতকে জন্ম হলেও সত্যেন্দ্রনাথ বিশ শতকের মানুষ। কেননা, তাঁর কর্ম ও মেধার বিকাশ তখনই। ‘মর্নিং শোজ দ্য ডে’ প্রবাদ অনুসারে সত্যেন্দ্রর প্রতিভার বিকাশ দেখা গিয়েছিল ছোট বয়সেই। সরস্বতীর এই বরপুত্রের ছাত্রজীবনে প্রতিভার চমক বিস্মিত করেছিল অনেককেই। ১৯০৯ সালে প্রবেশিকা পরীক্ষায় কৃতিত্বের সঙ্গে পাস করার পর ১৯১১ সালে তিনি আইএসসি পরীক্ষায় শুধু পাসই করলেন না, অর্জন করলেন একেবারে প্রথম স্থান। গণিতে ছিল তাঁর অসম্ভব মেধা । কলকাতার নিউ ইন্ডিয়ান স্কুলে পড়ার সময়ই একবার অঙ্ক পরীক্ষায় একশোয় পেয়েছিলেন একশো দশ। কঠিন সব অঙ্কের সমাধান তিনি খাতায় অনায়াসে কষে দেখিয়েছিলেন একাধিক উপায়ে। ফলে শিক্ষক এতদূর বিস্মিত হয়েছিলেন যে বলেছিলেন, এই ছাত্রকে একশো নম্বরের পরীক্ষায় একশো দশের কম কিছুতেই দেওয়া যেতে পারে না। ১৯১৫ সালে সত্যেন্দ্র যখন মিশ্র গণিতে এমএসসি পাস করলেন তখন দেখা গেল তখনকার রেকর্ড পরিমাণ নম্বর তাঁর ঝুলিতে– ৯২ শতাংশ। কিন্তু এইসব অঘটনের নায়কের সেদিন চাকরি জোটেনি কলকাতায়। অতি উচ্চশিক্ষিত পাত্রীর যেমন বিয়ের পাত্র সহজে জোটে না ঠিক তেমনই সত্যেন্দ্রর সাড়া-জাগানো রেজাল্টই হয়ে দাঁড়াল কাল। চাকরিদাতারা ভেবে বসলেন, এ ছেলেকে মাইনে দিয়ে খুশি করা তাদের কম্ম নয়। সবিনয়ে ফিরিয়ে দিল কলকাতার হাওয়া অফিস। ফিরিয়ে দিল পানা কলেজও। অসমে চলে গেলেন সত্যেন্দ্র। সেখানে এক জমিদার-পুত্রকে প্রাইভেট পড়ানোর ভার নিলেন। তাঁর এই ছাত্রটি হলেন পরবর্তীকালের বিখ্যাত চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব প্রমথেশ বড়ুয়া।

তারপর একদিন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য স্যর আশুতোষ মুখোপাধ্যায় তাঁকে ডেকে  বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানোর ভার দিলেন আইনস্টাইনের রিলেটিভিটির তত্ত্ব নিয়ে। পরে ঢাকা কলেজে সত্যেন্দ্র যোগ দেন পদার্থবিজ্ঞানের শিক্ষকতায়।

মাত্র ৩০ বছর বয়সে লেখা তাঁর গবেষণাপত্র পাঠিয়ে দিলেন আইনস্টাইনের কাছে। প্রাচ্যের বিজ্ঞানীর মেধা চমকে দিল পশ্চিমের বিজ্ঞানগুরুকে। আইনস্টাইন বললেন, বোসের গণনা, আমার মতে, একটা গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি। মাত্র চার পৃষ্ঠার সেই অমূল্য গবেষণাপত্রটি জার্মান ভাষায় অনুবাদ করে আইনস্টাইন ছাপিয়ে দিলেন বিখ্যাত “সাইটশ্রিফট” পত্রিকায়। তাঁদের মধ্যে পত্রালাপ চলতে থাকল। সত্যেন্দ্রনাথের তত্ত্ব পরিচিত হল ‘বোস-আইনস্টাইন সংখ্যায়ন’ নামে।

শুধু বিজ্ঞানের গবেষণায় উল্লেখযোগ্য অবদানই নয়, সত্যেন্দ্রর অবদান তাঁর মাতৃভাষাতেও। সেসময় জ্ঞানবিজ্ঞানের চর্চায় বাংলা ভাষা মাধ্যম হিসাবে ছিল অবহেলিত। সত্যেন্দ্র বলেছিলেন, “যাঁরা বলেন বাংলা ভাষায় বিজ্ঞানচর্চা সম্ভব নয়, তাঁরা হয় বাংলা জানেন না, নয়তো বিজ্ঞান জানেন না।” তাঁরই উদ্যোগে বাংলা ভাষায় প্রথম বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা “জ্ঞান ও বিজ্ঞান’ প্রকাশিত হয়। আজও সে-প্রকাশ অব্যাহত। তিনি ‘দেশিকোত্তম’ ও ‘পদ্মভূষণ’ সম্মান পান। নিজ বাসভবনে তিনি ‘বঙ্গীয় বিজ্ঞান পরিষদ’ নামে প্রতিষ্ঠান স্থাপন করেন। ১৯৫২ সালে রাজ্যসভার সদস্যও হন। রবীন্দ্রনাথ তাঁর ‘বিশ্বপরিচয়’ বইটি উৎসর্গ করেন সত্যেন্দ্রনাথকেই। ১৯৭৪ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি ৮০ বছর বয়সে লোকান্তরিত হন আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ। তার ৪৫তম প্রয়াণবার্ষিকীতে রইল আমাদের প্রণাম। শ্রদ্ধা জানাই বাংলার গর্বের নায়ক সত্যেন্দ্রনাথ বসুকে। তাঁর প্রেরণার আলো আমাদের ভবিষ্যৎকে করে তুলুক উজ্জ্বলতর।

 

This post is also available in: Bangla

Subscribe to Jagobangla

Get the hottest news,
fresh off the rack,
delivered to your mailbox.

652k Subscribers