কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলো বাংলা; দেশ রক্ষার লড়াই নিয়ে জেলাতেও আন্দোলন

হিয়া রায়

বিজেপি হটাও, দেশ বাঁচাও- জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই স্লোগানকে সামনে রেখে রাজ্যজুড়ে বিজেপির বিরুদ্ধে পথে নামল তৃণমূল কংগ্রেস। জেলায় জেলায় ধরনা-অবস্থান থেকে স্লোগান দেওয়া হল ২০১৯ বিজেপি ফিনিশ।

‘সেভ ইন্ডিয়া’ ব্যানারে মেট্রো চ্যানেলে ধরনা দেন জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দেশের সংবিধানকে বাঁচাতে, দেশকে রক্ষা করতে, বিজেপির বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছেন জননেত্রী। পাশে দাঁড়িয়েছেন দেশের মানুষ। সঙ্গে আছে বিজেপি বিরোধী সব রাজনৈতিক দল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে দেশ সবার আগে। দেশ এক থাকবে, দেশের মানুষের মধ্যে শান্তি-সংহতি-সম্প্রীতি-সংস্কৃতি বজায় থাকবে। তা যে নষ্ট করবে, তাকে কোনও অবস্থায় রেয়াত নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, দেশে সুপার এমার্জেন্সি চলছে। বিজেপির হাত থেকে দেশকে বাঁচাতে লড়াই। জীবন দেব। মৃত্যু বরণ করতে রাজি। কিন্তু বিজেপির কাছে মাথা নত করব না। যতদিন বাঁচব দেশের জন্য কাজ করব।”

জননেত্রীর নির্দেশমতো বিজেপির হাত থেকে দেশের সংবিধান, যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামো, গণতন্ত্র রক্ষার দাবিতে সল্টলেকে সিজিও কমপ্লেক্সের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করে তৃণমূল কংগ্রেস। ছিলেন রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃবৃন্দ। মন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, “দেশের মানুষকে বিজেপির হাত থেকে সুরাহা দিতে হবে। বিজেপিকে উৎখাত করতে হবে।” তৃণমূল কংগ্রেসের শিক্ষা সেল করুণাময়ী মোড় থেকে ময়ূখ ভবন পর্যন্ত বিজেপির বিরুদ্ধে মিছিল করে।
বিধাননগর ছাড়াও রাজ্যের প্রতিটি জেলার সদর কার্যালয়, মহকুমাস্তরে অবস্থান-বিক্ষোভ কর্মসূচী নেয় তৃণমূল কংগ্রেস। হাওড়ার এক কর্মসূচীতে তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক পুলক রায় বলেন, ক্ষমতা জাহির করার লক্ষ্যে বিজেপি কেন্দ্রীয় এজেন্সিকে ব্যবহার করছে। নির্বাচন এলেই কেন্দ্রীয় সংস্থাকে কাজে লাগিয়ে বিজেপি সক্রিয় হয়ে ওঠে। আইনের অপব্যবহার করছে। বিজেপি শাসিত কেন্দ্রীয় সরকারের স্বৈরাচারী নীতি ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার প্রতিবাদে কাকদ্বীপে গণ অবস্থান কর্মসূচী হয়। সেখানে ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী মন্টুরাম পাখিরা। তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়ন কর্মসূচীতে ভয় পেয়েছে বিজেপি। তাই এখন বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করে কেন্দ্রের ক্ষমতা দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

কিন্তু মানুষ সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন, বিজেপিকে আর সরকারে বসাবে না। আর তাতেই বিজেপি ভয় পেয়ে কেন্দ্রীয় এজেন্সিকে কাজে লাগাচ্ছে।
হুগলি, উত্তর ২৪ পরগণা, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, দুই বর্ধমান, দুই মেদিনীপুর-সহ উত্তরবঙ্গের প্রতিটি জেলাতেই ধরনা, অবস্থান-বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। রাজ্যজুড়ে এই প্রতিবাদ কর্মসূচী থেকে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব বার্তা দেন, কেন্দ্রের বিজেপি সরকার সংবিধানকে মানছে না, বিভিন্ন এজেন্সিকে কাজে লাগিয়ে রাজ্যের উপর ক্রমাগত আক্রমণ হচ্ছে। এই অবস্থায় কেন্দ্র থেকে বিজেপিকে হটাতে লাগাতার আন্দোলন চলবে বলে জানায় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। তাঁরা বলেছেন, এটা দেশকে বিজেপির হাত থেকে দেশকে বাঁচানোর লড়াই। দেশের গণতন্ত্রকে বাঁচানোর লড়াই।

দেখা গিয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেসের এই কর্মসূচীতে যোগ দিয়েছেন রাজ্যের সাধারণ মানুষ। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার দেশকে আরও পিছিয়ে দিয়েছে। দেশের মানুষ বিজেপির অত্যাচারে নাজেহাল। এই অবস্থায় দেশজুড়ে আওয়াজ উঠেছে, কেন্দ্রের ক্ষমতা থেকে বিজেপিকে হটাতে হবে। সেখানে মানুষের সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। বিজেপির হাত থেকে দেশকে বাঁচানো সবার আগে কর্তব্য বলে জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব।

This post is also available in: English

Subscribe to Jagobangla

Get the hottest news,
fresh off the rack,
delivered to your mailbox.

652k Subscribers