এনআরসি নিয়ে আতঙ্ক নয়, বললেন অভিষেক

সুব্রত ভট্টাচার্য 

বাংলায় এনআরসির ভয় দেখিয়ে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে বিজেপি আর সিপিএম। আর সেই আতঙ্কের বলি হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। কিন্তু বাংলার জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থাকতে বাংলায় কখনওই এনআরসির থাবা বসাতে পারবে না বলে জানিয়ে দিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এনআরসি আতঙ্কে ইতিমধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন রাজ্যের বহু মানুষ। নথিপত্র না পেয়ে কারও স্ট্রোক হয়েছে, আতঙ্কে কেউ আত্মঘাতী হয়েছে। এনআরসি আতঙ্কে আত্মঘাতী ব্যক্তিদের বাড়িতে গিয়ে তাঁদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মৃতের পরিবারকে পাঁচ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্যের কথাও ঘোষণা করেন তিনি। তার সঙ্গে অযথা এনআরসি আতঙ্কে ভুগে নিজেদের জীবন শেষ না করার জন্য মানুষকে পরামর্শ দেন তিনি। উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, নদীয় সহ নানা জায়গায় এনআরসি আতঙ্কে মৃত্যুর মুখে ঝাঁপিয়ে পড়ছেন মানুষ। অভিষেক ফলতার মামুদপুরে আত্মঘাতী কালাচাঁদ মিদ্যার বাড়ি গিয়ে তাঁর মা, স্ত্রী ও চার কন্যার সঙ্গে দেখা করেন। তহবিল থেকে দু’লক্ষ টাকা ও জেলা জুড়ে সংগ্রহ করা আরও তিন লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্যের কথা ঘোষণা করেন।

আগামী একমাসের মধ্যে পরিবারটির নতুন বাড়ি তৈরি করে দেওয়া হবে বলেও আশ্বাস দেন সাংসদ। ঘোষণা করেন, মৃতের চতুর্থ শ্রেণিতে পড়া এক মেয়ের আজীবন পড়াশোনার দায়িত্বও তিনি নেবেন। ওই এলাকায় সভাও করেন অভিষেক। সেই সভায় তিনি এনআরসি ইস্যুতে বিজেপি ও সিপিএমকে তুলোধোনা করে বলেন, “বিজেপি আর সিপিএম একে অপরের সঙ্গে হাত মিলিয়ে বাংলায় এনআরসি নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে। সাধারণ মানুষের মনে আতঙ্ক তৈরি করছে। ফলতায় এই মৃত্যুই যেন প্রথম ও শেষ মৃত্যু হয়। আমার লোকসভা কেন্দ্রে এমন আর একটা ঘটনা যদি ঘটে তাহলে এই জেলায় বিজেপি আর সিপিএমের রাজনীতি করা চিরতরে বন্ধ করে দেব।”

This post is also available in: English

Subscribe to Jagobangla

Get the hottest news,
fresh off the rack,
delivered to your mailbox.

652k Subscribers

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial